ময়মনসিংহ গেলে মিস্ করবেন না কিন্তু!!!

Posted In: Itinerary, Traveler's Blog, by on Oct, 05 2014. Leave a Reply

ময়মনসিংহ প্রাচীন জেলা শহরের মধ্যে একটি । খুব কিছু দেখবার বা করবার মত কিছু আছে বলবো না, কিন্তু পুরানো শহরের বনেদী জৌলুস আপনার চোখে পড়তে বাধ্য । তার উপর এই শহরে আমার জন্ম, তাই হয়তো একটু পক্ষপাতিত্ব ও আছে । তবে এটাও সত্যি যে কাজের প্রয়োজনে বা ঘুরতে আসলে ময়মনসিংহ আপনাকে নিরাশ করবে না ।

শহরটা খুব বড় না, আর উত্তরবঙ্গ, ঢাকা, পার্শবর্তী জেলাগুলোর সাথে বাস ও ট্রেনের ভালো যোগাযোগ রয়েছে । বাসে ঢাকা থেকে টিকেট করতে হয় মহাখালী থেকে আর সময় লাগে ৫/৬ ঘন্টা। এখানে যে জিনিসটা অবশ্যই চোখে পড়বে তা হলো অনেক ছাত্রের উপস্থিতি । সরকারী ও বেসরকারী মেডিকেল কলেজ, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সুপ্রাচীন আনন্দমোহন কলেজ, গার্লস ক্যাডেট কলেজ, টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, অদূরে ত্রিশাল কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় আরও অনেক প্রতিস্ঠান । আর এই প্রতিস্ঠানগুলোই যেন বাতাসে এনেছে তারুণ্য। তাই এই প্রতিস্ঠানগুলো ও ঘুরে আসতে পারেন । ময়মনসিহের ব্রহ্মপুত্র পাড়ের পার্ক, জয়নুল আবেদিন সংগ্রহশালা, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় মিস্ করবেন না কিন্তু !

ব্রহ্মপুত্র নদকে কেন্দ্র করে পাশে গড়ে উঠেছে পার্ক, রিক্সায় চলে যেতে পারেন খুব সহজে । নদের পাশে গড়ে উঠেছে চমৎকার সব রেস্টুরেন্ট। হিমুর আড্ডা কিংবা সারিন্দাতে বসে নদীর পাড়ে কাটাতে পারেন একটি সুন্দর বিকেল , তাছাড়া চটপটি, ফুচকা তো আছেই। নদীর অপাড়ে চর, ঘাসে ঢাকা মাঠ । নৌকা ভাড়া করে সহজেই ঘুরে আসতে পারেন । পার্কের পাশেই শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন সংগ্রহশালা ।তার আশ্চর্য সুন্দর সব সৃষ্টিতে সাজানো এই সংগ্রহশালা । শহরের পশ্চিম সিমান্তে নদের মোহনাতে গড়ে উঠেছে একটি আধুনিক আবাসিক হোটেল, সিলভার ক্যাসেল। সন্ধ্যায় অটো রিক্সা নিয়ে চলে আসতে পারেন এখানে। তাছাড়া শহরের কেন্দ্রবিন্দুতে ছড়ানো ছিটানো আছে অনেক রেস্টুরেন্ট

শহরের একটু বাইরেই বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সুবিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে আছে এই ক্যাম্পাস । রিক্সা বা অটোরিক্সায় করেই যাওয়া যায়। সাজানো গোছানো সবুজ ক্যাম্পাস, আম বাগান, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদের বিভিন্ন কৃষি প্রজেক্ট, রেললাইন, সব মিলিয়ে অন্যরকম এক পরিবেশ। শহরে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে সুপ্রাচীন সব প্রতিস্ঠান, আনন্দমোহন কলেজ, বিদ্যাময়ী স্কুল, জিলা স্কুল, দেশের একমাত্র মহিলা টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, প্রতিটা প্রতিস্ঠানই যেন এক একটি স্থাপত্যকলা আর গৌরবময় ইতিহাস।

হাতে সময় থাকলে ঘুরে আসতে পারেন মুক্তাগাছা রাজবাড়ী আর মধুপুর থেকে । যেতে হয় টাঙ্গাইলগামী বাসে। মাত্র ৪০ মিনিটে থেকে ১ ঘন্টায় চলে যেতে পারেন সেখানে । মুক্তাগাছার পুরাকীর্তি আর শান্ত সুন্দর ”দোখালা জাতীয় পাকর্”, ”মধুপুর আপনার ট্রিপে নতুন মাত্রা দিবে । একই ভাবে একটু সময় করে যেতে পারেন ত্রিশাল কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পসে।

যেভাবে যাবেন: মহাখালী বাসট্যান্ড থেকে বাসে বা ট্রেনে

দর্শনীয় স্থান: ব্রহ্মপুত্র পাড়ের পার্ক, জয়নুল আবেদিন সংগ্রহশালা, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় । কাছাকাছি যেতে পারেন মুক্তাগাছা রাজবাড়ী আর মধুপুর।

থাকা ও খাওয়ার জায়গার লিস্ট পাবেন এখানে!

Image by Topu Saha

About Shakilah

Loves history, culture and traveling to new places!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *